Menu

প্রবাস বাংলা ভয়েস ডেস্ক ::‌ ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে ভিড় বেড়েছে মসলার বাজারে। প্যাকেটজাত থেকে শুরু করে খোলা মসলার চাহিদা এখন তুঙ্গে। তবে চাহিদা বাড়লেও অন্য সময়ের মতো দাম বাড়েনি।মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁও, মোহাম্মদপুর, কারওয়ান বাজার, পলাশী বাজার, হাতিরপুল এলাকার কয়েকটি বাজার ঘুরে মসলার বাড়তি চাহিদার চিত্র দেখা গেছে।

ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, গত তিন সপ্তাহ ধরেই মসলার চাহিদা আছে। আজ সকাল থেকে তা অনেক বেশি। প্যাকেটজাত হলুদ, মরিচ, সব গরম মসলার চাহিদা বেড়েছে। একই সঙ্গে খোলা মসলার চাহিদারও ব্যাপক। তবে, চাহিদা বাড়লেও মাসলার দাম বাড়েনি।মোহাম্মদপুরের নতুন কাঁচা বাজারের মসলার ব্যবসায়ী মো. হেমায়েত বলেন, ‘এবার দাম বাড়ে নাই। আগেও যেমন ছিল, এখনও তেমন আছে।’

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি একশো গ্রাম হলুদ গুড়া বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা, মরিচ গুড়া ৩০ টাকা, আস্ত ধনিয়া ১৫ টাকা, ধনিয়া গুড়া ২০ টাকা, আস্ত জিরা ৪০টাকা, জিরা গুড়া ৬০ টাকা, কালো জিরা ৫০ টাকা, দারচিনি ৫০ টাকা, লবঙ্গ ১৫০ টাকা, এলাচ মানভেদে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।এছাড়া জয়ফল বিক্রি হচ্ছে প্রতিপিস ১০ টাকা আর দেশি আদা কেজি ১৩০ টাকায়। পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি ৪৫- ৫০ টাকায়। দেশি রসুন ৭০ টাকা কেজি আর চায়না রসুন কেজি ১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে মসলা কেনার ভিড় দেখা গেছে, হলুদ-মরিচ ভাঙানোর মিলগুলোতে। এসব মিলে চাহিদার শীর্ষে রয়েছে হলুদের গুড়া, মরিচের গুড়া, ধনিয়া ও জিরার গুড়া।এদিকে মহল্লার মুদি দোকানেও হলুদ, মরিচ, ধনিয়া, জিয়া, গরম মসলার চাহিদা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

প্রবাস বাংলা ভয়েস/ঢাকা/ ২০  জুলাই ২০২১ /এমএম