Menu

প্রবাস বাংলা ভয়েস ডেস্ক ::‌  সাধারণত শিশুরা যখন জানে না কী ভাবে সমস্যার সমাধান করে এগিয়ে যেতে পারে, তখন তাদের মধ্যে হতাশার অনুভূতি তৈরি হয়। তখন বড়দের মতো ছোট বাচ্চারাও রেগে যেতে পারে। এটি স্বাভাবিক। কিন্তু সন্তান যদি কথায় কথায় রেগে যায় বা চিৎসকার করে তখন তা নিয়ন্ত্রণ করা একান্তই জরুরি। কারণ, মনে রাখবেন রাগ মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু।

কিছু কিছু শিশু রয়েছে যারা নিজেদের চাহিদা মতো জিনিস না পেলে রেগে যায়। এর পর সহজেই কান্নাকাটি জুড়ে দেয়। এই সব থেকে রক্ষা করার জন্য, শিশুদের মধ্যে হতাশা সহনশীলতা গড়ে তোলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেক্ষেত্রে কিছু বিষয় মনে রাখা জরুরি। যেমন-

​হতাশা প্রকাশ : হতাশা সহ্য করার জন্য, এটির মুখোমুখি হতে হবে। সন্তানকে পর্যবেক্ষণ করা, তার মধ্যে হালকা হতাশা এবং চরম হতাশার মধ্যে পার্থক্য করার চেষ্টা করা সহায়ক হতে পারে। তারা যত বেশি হতাশার মুখোমুখি হবে, তত বেশি সময় তারা বিষণ্ণ থাকবে। এই হতাশা কাটিয়ে উঠতে শিশুকে সাহায্য করুন। এজন্য হালকা হতাশা থাকলেই তার সঙ্গে কথা বলতে হবে।

​সহায়ক গেম : রাগ একটি শিশুকে হতাশার প্রতি আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। শিশুদের রাগ নিয়ন্ত্রণে কিছু গেম সহায়ক হতে পারে। এমন কিছু গেম তার জন্য নির্বাচন করুন।

​বই পড়া : বই শিশুদের নানা কাজে সাহায্য করে। তাদের অনুভূতিগুলিকে অতিরিক্ত প্রকাশ না করে আরও ভালোভাবে বুঝতে সাহায্য করার একটি দুর্দান্ত উপায় হচ্ছে বই পড়া। বই পড়ার অভ্যাসও তার হতাশা নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখবে।

​উৎসাহিত করুন : শিশু কী করতে পারে এবং তাকে এখন কী শিখতে হবে তার মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করুন। এটি শিশুকে কাজটি সম্পূর্ণ করতে এবং সমস্যার সমাধান করতে উৎসাহিত করে।

প্রবাস বাংলা ভয়েস/ঢাকা/ ১৯ নভেম্বর ২০২২ /এমএম