Menu

প্রবাস বাংলা ভয়েস ডেস্ক ::‌ দেশে গত জুলাই মাসে সাধারণ ও খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার কিছুটা কমেছে। এ সময়ে সাধারণ মূল্যস্ফীতির হার কমেছে দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। খাদ্যপণ্য মূল্যস্ফীতি কমেছে দশমিক ১৮ শতাংশ।আজ বুধবার বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) দেওয়া জুলাই মাসের ভোক্তা মূল্য সূচকের (সিপিআই) হালনাগাদ তথ্যে এসব তথ্য জানানো হয়।জানা গেছে, গত মাসে সাধারণ মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ, এর আগে জুন মাসে ছিল ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ। জুনে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ। এটি কমে জুলাইয়ে হয়েছে ৮ দশমিক ১৯ শতাংশ।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বেড়ে চলছিল মূল্যস্ফীতির হার। জুন মাসে খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতির হার ব্যাপকভাবে বেড়ে যায়। সামনের দিনগুলোতে আরও বেশি মূল্যস্ফীতির আশঙ্কা করা হচ্ছিল। তবে জুলাইয়ে মূল্যস্ফীতির হার কিছুটা কমায় তাকে স্বস্তি হিসেবে দেখা হচ্ছে।মূল্যস্ফীতির হার কমতে শুরু করেছে জানিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ‘রাশিয়া থেকে খাদ্যপণ্যবাহী জাহাজ দেশে আসছে। তেল, চাল ও গমের দাম কমছে। সামনে মূল্যস্ফীতির কমতির ধারা অব্যাহত থাকবে। এটি আমাদের জন্য ভালো খবর।’

বিবিএসের তথ্যমতে, দেশে পেঁয়াজ, ডাল, চিনি, মুড়ি, মাছ, মাংস, ব্রয়লার মুরগি, ফল, দুগ্ধজাতীয় পণ্যসহ অন্যান্য খাদ্যপণ্যের দাম কিছুটা কমেছে।তবে জুলাই মাসে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার কমলেও খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়েছে দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ। জুন মাসে এই মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ, জুলাইয়ে হয়েছে ৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

প্রবাস বাংলা ভয়েস/ঢাকা/ ০৩ আগস্ট ২০২২ /এমএম