Menu

প্রবাস বাংলা ভয়েস ডেস্ক ::‌ মার্ক জাকার্বার্গের মেটাভার্স তথা ত্রিমাত্রিক ভার্চুয়াল দুনিয়ায় মিলবে স্পর্শের অনুভূতিও। পাশাপাশি বসে কথোপকথন চালাতে কিংবা কাজে অংশ নেওয়া বাস্তবতা উপহার দেওয়ার পর এমন বার্তাই দিয়েছেন ফেসবুকের সিইও। তিনি বলছেন, মেটাভার্সে কেবল দেখা কিংবা শোনা নয়, মিলবে স্পর্শের অনুভূতিও।

সে জন্য হাতে থাকতে হবে বিশেষ প্রযুক্তির গ্লাভস বা দস্তানা। সে গ্লাভস কীভাবে কাজ করবে, ফেসবুক পোস্টে তাও দেখিয়েছেন তিনি। ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান দ্য রিয়েলিটি ল্যাবস এ গ্লাভস তৈরি করছে। পরীক্ষামূলক এ গ্লাভসটি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) হেডসেটের সঙ্গে ব্যবহার করতে হবে। গ্লাভসটি কাজ করে মাইক্রোফ্লুইডিকসের সাহায্যে, এর মাধ্যমে বাতাসের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করে অ্যাকচুয়েটরগুলোকে নাড়ানো যায়। পাশাপাশি হ্যান্ড-ট্র্যাকিং প্রযুক্তি নিয়েও কাজ করছে মেটা।

ফলে গ্লাভস পরে বল ছুড়ে দিয়ে ধরা, আবার কারও সঙ্গে করমর্দন করাও যাবে। ব্যাপারটা এমন যে দুই বন্ধু ২০০ কিলোমিটার দূরে নিজ নিজ ঘরে বসে থেকেও একে অপরের সঙ্গে করমর্দন করতে পারবেন। তা-ও আবার যথারীতি হাত নাড়িয়ে। মেটা ইনকরপোরেটেডের তথ্যানুযায়ী, রিয়েলিটি ল্যাবস গত ৭ বছর ধরে বিশেষ প্রযুক্তিসম্পন্ন এ গ্লাভসটি নির্মাণে কাজ করছে।

প্রবাস বাংলা ভয়েস/ঢাকা/ ২১ নভেম্বর  ২০২১ /এমএম